হোম / বাংলাদেশ

News
অপর আসামি শহীদের জেল আপিল খারিজ করেন আপিল বিভাগ। ট্রান্সকম গ্রুপের চেয়ারম্যান লতিফুর রহমান ও শাহনাজ রহমানের ১৫ বছর বয়সী মেয়ে শাজনীন তাসনিম রহমান তখন ঢাকার স্কলাসটিকা স্কুলের নবম শ্রেণির ছাত্রী ছিল।১৯৯৮ সালের ২৩ এপ্রিল রাতে শাজনীন ধর্ষণ ও খুনের ঘটনায় দায়ের করা মামলার বিচার হয় ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে। আপিল বিভাগ চার আসামির আপিল মঞ্জুর করায় তাঁদের সাজা মওকুফ হয়। বাকি পাঁচ আসামির ফাঁসির আদেশ বহাল রাখা হয়। হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করেন চার আসামি হাসান, বাদল, মিনু ও পারভীন। ফাঁসির আদেশ পাওয়া আরেক আসামি শহীদ জেল আপিল করেন